বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৫:০২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
লক্ষ্মীপুরে গরু আছে ক্রেতা নেই! ব্যবসায়ীরা হতাশায়। ময়মনসিংহের তারাকান্দায় স্কুলের সেপ্টিক ট্যাংকে ভিতরে অটোচালকের লাশ। তামাক নিয়ন্ত্রন আইনে বাস্তবায়নে সংশোধন করা জরুরী। প্রেসিডেন্ট বাইডেন ও ট্রাম্পকে আর নির্বাচনে দেখতে চান না মার্কিনিরা। হাসানের নতুন গান প্রকাশিত হয়েছে “মাগো’ পুত্রের সামনে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করা, আসামি ফরিদ ও আসিফ গ্রেফতার। ত্রিশালের হত্যা মামলায় ৩ জনের যাবতজীবন। সন্ত্রাসী চাঁদাবাজি রুট দখলের অপচেষ্টা বন্ধের দাবীতে সীতাকুণ্ড অটো টেম্পু শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিবাদ সভা। নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে দু`দিনে পাগলা কুকুরের কামড়ে ২৫ জন আহত। নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় মাঠও থাকবে আশ্রয়ন প্রকল্পও হবে-এমপি অসীম কুমার উকিল।

মিতুর কণ্ঠে লালনের ‘সব লোকে কয়’

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২২ জুন, ২০২২, ১.২৪ পিএম
  • ২১ বার পঠিত

আল সামাদ রুবেলঃ একজন নবীন চারদিকে দেখে দেখে শিখে। এরপর নিজে বলবান, ফলবান এবং ছায়াবান হয়ে নিজের অস্তিত্ব জানান দেয়। তেমনই একজন তরুণ কণ্ঠশিল্পী কানিজ খন্দকার মিতু। টাংগাইলের মেয়ে মিতুর গানের তালিম শুরু হয় ওস্তাদ গোলাম রাব্বানী রতনের কাছে।তিনি মিতুকে নিজের মেয়ের মত করেই গানের তালিম দেন মিতু তাকে গুরু বাবা বলেই ডাকেন মিতু নিজের ধ্যান-জ্ঞান একাকার করে সঙ্গী করেছিলেন গানকে। মিতু স্বপ্ন পূরণের প্রথম ধাপটি শুরু হয় ব্র্যাক ব্যাংক নিবেদিত সংগীতবিষয়ক রিয়েলিটি শো ‘মেঘে ঢাকা তারা’য় অংশ নিয়ে। ২০১১ আয়োজিত এটিএন বাংলায় প্রচারিত এই আয়োজনে প্রথম স্থান অর্জন করেছিলেন তিনি। এবার বিশ্ব সংগীত দিবসে মঙ্গলবার ‘কোক স্টুডিও’র বাংলা ভার্সন’র গান ‘সব লোকে কয়’। লালন সাঁইজী ‘সব লোকে কয়’ এই গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন মিতু। গানটি প্রযোজনার পাশাপাশি সংগীতায়োজন করেছেন শায়ান চৌধুরী অর্ণব। গানটির বিষয়ে মিতু ব

লেন, এত বড় প্ল্যাটফর্মে লালন সাঁইজীর গান করতে পেরেছি এটি আমার কাছে অনেক বড় পাওয়া। এ জন্য প্রথমেই কৃতজ্ঞতা জানাই অর্ণবদার প্রতি। তিনি না থাকলে এই সুযোগটি পাওয়া হতো না। পাশাপাশি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জানাই আমার ওস্তাদ গোলাম রাব্বানী রতনের প্রতি। তিনি আমার পাশে ছায়ার মতো না থাকলে হয়তো এতদূর আসা সম্ভব হতো না। এছাড়াও আমার বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষকের প্রতিও আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।’
কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সংগীত বিভাগ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন মিতু। একই বিশ্ববিদ্যালয়ে লোক বিভাগে মাস্টার্সে অধ্যায়নরত।
গানের আকাশে মিতুর নব যে পথচলা শুরু হলো, এই যাত্রায় কণ্ঠ, সুর, তাল আর লয়কে মুঠোবন্দি কর মেঘের ভেলায় পাড়ি দিয়ে চলতে চান অসীম দূরত্বে। তিনি বলেন, ছোট থেকেই গান নিয়ে থাকলেও কোক স্টুডিওর এই গানের মাধ্যমে আমার পুনর্জন্ম হলো। এই ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। পাপাপাশি গান দিয়ে মানুষের হৃদয়ে জায়গা করে নিতে চাই। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন, আমি যেন আপনাদের ভালো কিছু গান উপহার দিতে পারি৷
এদিকে মিতুর গাওয়া ‘সব লোকে কয়’ গানের সঙ্গে ভারতীয় ফোকের মিশ্রণে ফিউশন তৈরি করা হয়েছে। এই অংশের শিরোনাম ‘কবিরা কুয়া এক হ্যায়’। এতে কণ্ঠ দিয়েছেন ভারতের গায়ক মুর্শিদাবাদী। এটি পনেরো শতকের ভারতীয় রহস্যবাদী কবি এবং সাধক কবীর দাশের লেখা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazsongbadsara1
© All rights reserved  2019 songbadsarakkhon
Theme Download From ThemesBazar.Com