বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন

ভাঙ্গায় পারিবারিক কবরস্থানের জায়গা দখল করে গরুর খামার স্থাপন

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৫ মে, ২০২১, ১০.৫৫ পিএম
  • ৫০ বার পঠিত

মাহমুদুর রহমান(তুরান)ভাঙ্গা(ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের চানপট্টি গ্রামে একটি পারিবারিক কবরস্থানের জায়গা দখল করে প্রভাবশালীর বিরুদ্বে গরুর খামার স্থাপনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কবর স্থানে শায়িত ব্যক্তিদের স্বজনেরা বাধা দিলেও প্রভাবশালী ব্যক্তি উল্টো হুমকি ধামকি দিচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে কবরস্থানের পবিত্রতা রক্ষার্থে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ভুক্তভোগীরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ দাখিল করেছেন।

অভিযোগে প্রকাশ,ওই গ্রামের তোফাজ্জেল শিকদারসহ বেশ কয়েকজন সদস্য মিলে প্রায় শতবছর ধরে বসত বাড়ির পাশেই একটি কবরস্থান তৈরী করেন। পর্যায়ক্রমে কালের পরিক্রমায় বহু মৃতদেহ এখানে দাফন করা হয়। দীর্ঘ্যদিন যাবৎ এটি কবরস্থান হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। সম্প্রতি একই গ্রামের নজরুল শিকদার,সামসু শিকদার গংরা মিলে চুপিসারে কবর স্থানের জায়গায় গোয়ালঘর নির্মান করেন।

পর্যায়ক্রমে জায়গা জবর দখল করে পুরো কবরস্থানের জায়গার উপর গরুর খামার তৈরী করে। এতে গরুর খামারের মল-মুত্র পুরো কবরস্থানে ছড়িয়ে পড়ে। পরে গোরস্থানে শায়িত মৃতের স্বজনেরা বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ জানান। এলাকাবাসী,স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সহ গন্যমান্য ব্যক্তিদের কাছে জানানো হয়। প্রভাবশালী নজরুল শিকদার গংরা কোন কথার তোয়াক্কা না করে কাজ অব্যাহত রাখে।

এক পর্যায়ে উত্তেজনা চরম আকার ধরে। বিষয়টি নিয়ে বাধ্য হয়ে প্রবাসী হাবিজুল শিকদার উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজিম উদ্দিন বরাবর একটি আবেদন পত্র দাখিল করেছেন। সরেজমিনে মঙ্গলবার সকালে গিয়ে দেখা যায় অভিযুক্ত সামসু শিকদার,নজরুল শিকদার গংরা কবর স্থানের জায়গাটি দখল করে গরুর খামার তৈরী করে মল-মুত্র ফেলে পবিত্রতা নষ্ট করেছেন। স্থানীয় জনৈক ইউপি সদস্য জানান,এলাকাটি দীর্ঘ্যদিন যাবৎ পারিবারিক কবরস্থান হিসেবে চিহ্নিত। এখানে বহু লাশ দাফন করা হয়েছে। বিষয়টি খুবই স্পর্শকাতর। কবরস্থান থেকে গরুর খামার অন্যত্র নেওয়া উচিৎ।

কিন্ত প্রতিপক্ষ সামসু শিকদার গংরা কোন অদৃশ্য কারনে কর্নপাত করছেনা। গ্রামের আঃ রশিদ জানান,কবর স্থানটিতে দীর্ঘ্যদিন যাবৎ মৃতদেহ দাফন করা হয়। সম্প্রতি নজরুল শিকদার সহ কয়েকজন মিলে এটি দখল করে অপ্রত্যাশিতভাবে গরুর খামার তৈরী করে। আমরা বাধা দিলেও সে কোন তোয়াক্কা করছেনা। অভিযুক্ত নজরুল শিকদার ,কামরুল শিকদারের সাথে বিষয়টি নিয়ে কথা বললে তারা কবরস্থানের জায়গা স্বীকার করে বলেন, আমার জায়গার সংকটের কারনে গরুর খামার দিয়েছি।

এ ব্যাপারে ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজিম উদ্দিনের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। যেহেতু বিষয়টি স্পর্শকাতর । তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazsongbadsara1
© All rights reserved  2019 songbadsarakkhon
Theme Download From ThemesBazar.Com