শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০৯:১৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
সূত্রাপুরে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীরের ৩ সদস্য গ্রেফতার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি ফরম বিতরণ ৮ থেকে ২২ জুন বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ গেমস: প্রথম ম্যাচে নীল দলের সহজ জয় আগামীকাল স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ৭ মার্চ বিএনপি ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালনের ঘোষণা আরেকটা রাজনৈতিক ভন্ডামি ছাড়া আর কিছুই না : সেতুমন্ত্রী আজ দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১০ জনের মৃত্যু কমনওয়েলথে অনুপ্রেরণাদায়ী শীর্ষ ৩ মহিলা নেতার অন্যতম শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবহৃত ভ্যাকসিন সফল ও কার্যকর বলে প্রমাণিত : ড: ফাউচি আমেরিকান জনগণ বাইডেনের কাজের প্রতি ৬০% সমর্থন ব্যক্ত ইরাক সফরে পোপ ফ্রান্সিস

ইরানের পরমাণু কেন্দ্রে জাতিসংঘের নজরদারি বন্ধ করা হবে

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১, ৬.৪২ পিএম
  • ১৬ বার পঠিত

জাতিসংঘ আর ইরানের পরমাণু কেন্দ্রের উপর নজরদারি চালাতে পারবে না বলে জানিয়ে দিল ইরান। তেহরানের সঙ্গে জরুরি বৈঠক জাতিসংঘের অ্যাটোমিক ওয়াচডগের প্রধানের।

আইন হয়েছিল মাসখানেক আগেই। তখনো মার্কিন প্রেসিডেন্টের চেয়ারে ডনাল্ড ট্রাম্প। ইরানের পার্লামেন্ট জানিয়েছিল, অ্যামেরিকা তাদের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা না তুললে ইউরেনিয়ামের মজুত কয়েক গুণ বাড়ানো হবে। পাশাপাশি, দেশের পরমাণু-কেন্দ্রে জাতিসংঘের নজরদারি বন্ধ করা হবে। ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অ্যামেরিকাকে সময় দেওয়া হয়েছিল ওই আইনে। সোমবার থেকে সেই আইন বলবৎ হবে বলে জানিয়েছে ইরান।

রোববার তেহরানের সঙ্গে এ বিষয়ে জরুরি বৈঠক করেন জাতিসংঘের অ্যাটোমিক ওয়াচডগের প্রধান রাফায়েল গ্রসি। বৈঠকের পর সাংবাদিকদের তিনি জানিয়েছেন, তেহরানের সঙ্গে একটি সমঝোতায় পৌঁছানো গেছে। আগামী কয়েকমাস জাতিসংঘ আগের মতো না হলেও ইরানে পরমাণু-কেন্দ্রের খবরাখবর নিতে পারবে।

তেহরানের সঙ্গে জাতিসংঘের বৈঠকে ঠিক কী আলোচনা হয়েছে, তা এখনো স্পষ্ট নয়। গ্রসি এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানাননি। তিনি কেবল জানিয়েছেন, পরমাণু-কেন্দ্রে নজরদারির জন্য ইরানে জাতিসংঘের যে প্রতিনিধিরা ছিলেন, এখনই তাদের ইরান দেশ থেকে বার করে দেবে না। আগামী অন্তত তিন মাসের জন্য ইরানের সঙ্গে একটি সমঝোতায় পৌঁছানো গেছে। জাতিসংঘ আগের মতো না হলেও, ইরানের পরমাণু-কেন্দ্রের খবরাখবর রাখতে পারবে। এর চেয়ে বেশি বৈঠকের বিষয়ে আর কিছু জানাননি জাতিসংঘের অ্যাটোমিক ওয়াচডগের প্রধান।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ রোববার ইরানের জাতীয় টেলিভিশনে জানিয়েছেন, জাতিসংঘ ইরানের পরমাণুকেন্দ্রে ক্যামেরা বসিয়ে রেখেছিল। সোমবার থেকে সেই ক্যামেরার ফুটেজ আর তাদের দেওয়া হবে না। অর্থাৎ, তেহরান স্পষ্ট করে দিয়েছে, পরমাণু কেন্দ্রে আর সরাসরি নজরদারি চালাতে পারবে না জাতিসংঘ।

বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, অ্যামেরিকার উপর চাপ সৃষ্টি করতেই ইরান এই চরম পদক্ষেপ নিয়েছে। সাময়িক একটি সমঝোতা হলেও আগামী তিনমাসের মধ্যে ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তি নিয়ে অ্যামেরিকাকে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করতে হবে। ২০১৮ সালে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প পরমাণু চুক্তি থেকে অ্যামেরিকাকে সরিয়ে নিয়েছিলেন। একই সঙ্গে ইরানের উপর একাধিক নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন। বিষয়টি নিয়ে ইউরোপের একাধিক দেশ আপত্তি জানালেও ট্রাম্প কারো কথা শুনতে রাজি হননি। বাইডেন ক্ষমতায় আসার পরে তাঁর উপর চাপ সৃষ্টি করতেই ইরান এই চরম পদক্ষেপ নিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

পরমাণু চুক্তি নিয়ে আলোচনায় আগ্রহী জো বাইডেন। তবে ইরানের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তোলার ব্যাপারে তাঁর মনোভাব এখনো স্পষ্ট করেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ইরানের স্পষ্ট বক্তব্য, অ্যামেরিকাকে ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তিতে ফিরতে হবে এবং ইরানের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে হবে। সূত্র:ডয়েচে ভেলে

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazsongbadsara1
© All rights reserved  2019 songbadsarakkhon
Theme Download From ThemesBazar.Com